পার্সপোর্ট ভেরিফিকেশনঃ-

সাধারনত বিদেশে চাকুরী, ব্যবসা, ভ্রমন, পড়ালেখা ইত্যাদির জন্য পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন করা হয়৷ পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন ফরম ইন্টারনেট বা সংশিস্নষ্ট পাসপোর্ট অফিস থেকে দুই কপি সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে তা পাসপোর্ট অফিসে জমা দিতে হয়৷ পাসপোর্ট অফিস তা ভেরিফিকেশনের জন্য প্রার্থী সংশ্লিষ্ট জেলা পুলিশ অফিসে প্রেরণ করে৷ পুলিশ সুপার অফিসের জেলা বিশেষ শাখা লোক মারফত নিম্নলিখিত বিষয় সরেজমিনে পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ করে রিপোর্ট তৈরী করেন।
ক) নাম-ঠিকানা সঠিক আছে কিনা
খ) জন্ম সূত্রে বাংলাদেশী নাগরিক কিনা৷
গ) শিক্ষাগত যোগ্যতা সঠিক আছে কিনা ৷
ঘ) ব্যক্তিচরিত্র সংক্রান্ত৷
ঙ) মামলা আছে কি না তা যাচাই ৷
চ) কোন রাজনৈতিক দলের সদস্য আছে কি না তা যাচাই ৷
ছ) থানা রেকর্ডে তার সম্পর্কে কোন কিছু লিখিত আছে কি না তা যাচাই ৷
জ) বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা যাচাই ৷ পুলিশ সুপার কার্যালয়ের জেলা বিশেষ শাখা থেকে উক্ত তথ্যগুলো সরেজমিনে পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ দ্বারা রিপোর্ট সংগ্রহ করে রিপোর্ট প্রদান করা হয়৷

প্রার্থী পাসপোর্ট ফরমে নিম্নলিখিত কাগজপত্র জমা দিতে হয়ঃ-

ক) প্রার্থীর আইডি কার্ডের ফটোকপি
খ) জন্মসনদ/ভোটার আইডি কার্ডেও ফটোকপি/নাগরিকত্ব সনদ
গ) বাবামায়ের/স্বামীর/ভাই/বোন অথবা অন্যান্য অভিভাবকের আইডির ফটোকপি
ঘ) কাবিননামার ফটোকপি
ঙ) শিক্ষা সনদের ফটোকপি
চ) বাড়ির দলিল/বিদু্যত্‍ বিল/গ্যাস বিলের ফটোকপি
ছ) স্টুডেন্ট আইডি/ট্রেড লাইন্সেস এর ফটোকপি/পেশা সংক্রান্ত প্রমাণ পত্র
জ) ওয়াড কমিশনারের সনদ
ঝ) বাবা/মায়ের পাসপোর্টেও ফটোকপি
ঞ) এনওসি
ট) ভাড়া বাড়ির ক্ষেত্রে বাড়ির মালিকের আইডির ফটোকপি/বিদু্যত্‍ বিল/দলিল/গ্যাস বিলের ফটোকপি
ঠ) বাড়ির মালিকের অঙ্গীকারনামা
ড) ট্রাভেল এজেন্সির অঙ্গীকারনামা
ঢ) দাদা/দাদী/নানা/নানী/ভাই/বোন/অন্যান্য অভিভাবকের অঙ্গীকারনামা
ত) তালাকনামার ফটোকপি
থ) পিতামাতার ভোটার আইডি কার্ডেও ফটোকপি

উপরোক্ত বিষয়গুলি তদন্তকারী অফিসার যাচাই বাছাই কওে রিপোর্ট প্রস্তুুত করেন৷ উক্ত অফিসারের তথ্যেও ভিত্তিতে এ রিপোর্ট দাখিল করা হয়৷